নিজের সতীত্ব রক্ষা করতে আপন বাবাকে কুপিয়ে খুন করল মেয়ে,,,

পৃথিবীতে মেয়েদের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয় ও নির্ভয় আশ্রয় বাবা। একমাত্র বাবাই তার মেয়েকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিয়ে আগলে রাখতে পারেন। কিন্তু সম্প্রতি এক বাবাই তার মেয়ের সর্বনাশ করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। ভারতের উত্তরখণ্ডের উত্তরকাশী জেলার বরকোট এলাকায় গত সোমবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। ঘুমন্ত অবস্থায় ধর্ষণের চেষ্টা করায় নিজের বাবাকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে খুন করেছে এক তরুণী।

এরপর পুলিশ ওই তরুণীকে গ্রেফতার করেছে। জানা গেছে, ওই তরুণীর বিয়ে হয়ে গিয়েছিলো। মেলা দেখতে বাবার বাড়ি গিয়েছিলেন তিনি। ওই দিন রাতে পরিবারের সবাই মেলায় গিয়েছিলেন। বাকিরা রাত পর্যন্ত সেখানে থাকলেও, তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসেন ওই তরুণী। বাড়িতে কেউ না থাকায়, ঘুমিয়ে পড়েছিলেন তিনি। সেই সময়ই ঘুমন্ত মেয়ের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ৫১ বছরের ওই ব্যক্তি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, বাবাকে বাধা দেওয়ার সবরকম চেষ্টাই করেন ওই তরুণী। কিন্তু গায়ের জোরে পেরে উঠছিলেন না তিনি। তখনই ঘরের এক কোণে রাখা কুড়ুলের উপর নজর পড়ে তার। হাত বাড়িয়ে সেটি টেনে আনেন তিনি। আর তা দিয়েই বাবাকে কোপাতে শুরু করেন। ঘটনাস্থলেই বাবার মৃত্যু হয়। কিছুক্ষণ পর পরিবারের বাকি সদস্যরা বাড়ি ফিরে আসেন।

সেখানে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে পড়ে থাকতে দেখেন তারা।জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাদের সব কথা খুলে বলেন অভিযুক্ত তরুণী। খবর যায় পুলিশেও। মঙ্গলবার সকালে ওই তরুণীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.